ডেনমার্ককে কাঁদিয়ে ৫৫ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

এবার নিজেদের সবটুকু উজাড় করে দিয়েও শেষ রক্ষা হলোনা ডেনমার্কের। গোলরক্ষক ক্যাসপার স্মাইকেলের চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্সের পরও বিতর্কিত এক পেনাল্টিতে স্বপ্নভঙ্গ হলো ডেনিশদের। সেমিফাইনালে অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচে পেনাল্টি মিসের পর ফিরতি শটে হ্যারি কেইন বল জালে পাঠাতেই বাঁধভাঙা উল্লাসে মাতল ইংল্যান্ড।

গতকাল বুধবার রাতে আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ২-১ গোলে জিতেছে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা। ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা শেষ হয় ১-১ সমতায়। প্রথমার্ধে মিকেল ড্যামসগার্ডের ফ্রি-কিকে পিছিয়ে পড়া ইংলিশরা বিরতির আগেই সমতায় ফেরে সিমন কারের আত্মঘাতী গোলে। এরপর অতিরিক্ত সময়ে ১০২ মিনিটের মাথায় স্টার্লিং বল নিয়ে বক্সে ঢুকে পড়লে তাকে ঘিরে ধরেছিলেন ড্যানিশ ডিফেন্ডাররা, মাহলে আটকাতে চাইলে পড়েও যান স্টার্লিং।

ভার চেক করে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। যদিও সেটিকে পেনাল্টির যোগ্য বলে মানতে নারাজ অনেকেই। ড্যানিশ গোলরক্ষক স্মাইকেল সেই পরীক্ষাতেও উৎড়ে যাচ্ছিলেন প্রায়। হ্যারি কেইনের শট ডানদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে আটকে দিয়েছিলেন তিনি, কিন্তু মুহূর্তেই ফিরতি বল পেয়ে বাঁ দিক দিয়ে জালে ঢুকিয়ে দেন হ্যারি কেইনই। চলতি আসরে তার গোলসংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪।

এরই সাথে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়েন কেইন। অন্যদিকে ৫৫ বছরের আক্ষেপ ঘুচে ইংলিশদের। আগামী রবিবার একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে ইউরোর ফাইনাল। বাংলাদেশ সময় রাত একটায় ইতালির মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড। অতীতে ইতালিয়ানরা একবারই এই প্রতিযোগিতার শিরোপা জিতেছিল, ১৯৬৮ সালে। আর থ্রি লায়ন্সদের সামনে রয়েছে প্রথম শিরোপার হাতছানি।

Show More
Back to top button